এসএসসিতে পাসের হার বেড়েছে ৮২.৮৭%, এবারও রাজশাহী বোর্ড শীর্ষে ৯০.৩৭%

0 0
Read Time:5 Minute, 27 Second

দ্যা ডেইলি নিউজ / ID/31 05 2020/TDNB/0060        

 এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় গত বছরের চেয়ে পাসের হার বেড়েছে। গত বছরের তুলনায় এ বছর জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যাও বেড়েছে। এ বছর এসএসস ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ জন শিক্ষার্থী।

 রোববার (৩১ মে) সকাল ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেওয়া হয়। পরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি অনলাইন ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে ফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।

ফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, এ বছর ১১ বোর্ডের অধীনে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ। গত বছর পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় এ বছর পাসের হার কিছুটা বেড়েছে।

এদিকে, এবার ১১ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে মোট ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ শিক্ষার্থী। গত বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। অর্থাৎ প্রায় ৩০ হাজার বেশি শিক্ষার্থী এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে।

আলাদাভাবে কেবল ৯ সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীন এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৮৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে দাখিলে এই হার ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ, কারিগরির শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় সেটা ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

এবারও রাজশাহী বোর্ড শীর্ষেঃ

এ বছর রাজশাহী বোর্ডে পাসের হার সবচেয়ে বেশি ৯০ দশমিক ৩৭ শতাংশ। অন্যান্য বোর্ডের মধ্যে ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৮২ দশমিক ৩৪ শতাংশ, দিনাজপুর বোর্ড ৮২ দশমিক ৭৩ শতাংশ, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৮৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ, যশোর বোর্ডে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৩১ শতাংশ, বরিশাল বোর্ডে ৭৯ দশমিক ৭০ শতাংশ, কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৮৫ দশমিক ২২ শতাংশ, সিলেট বোর্ডে পাসের হার ৭৮ দশমিক ৭৯ শতাংশ, ময়মনসিংহ বোর্ডে পাসের হার ৮০ দশমিক ১৩ শতাংশ। এছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডে ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ এবং কারিগরি বোর্ডে পাসের হার ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

প্রকাশিত ফলে দেখা যায়, এবার রাজশাহী বোর্ড থেকে এসএসসিতে অংশ নিয়েছিল ২ লাখ ১৮৫ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে পাস করেছে ১ লাখ ৮০ হাজার ৯০২ জন। শতকরা হারে এটি ৯০ দশমিক ৩৭ শতাংশ। 

গত বছরও রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড পাসের হারে দেশসেরা হয়েছিল। তবে গত বছর এই বোর্ডে পাসের হার ছিল ৯১ দশমিক ৬৪ শতাংশ, যা চলতি বছরের তুলনায় ১ শতাংশের বেশি।

শুধু ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার ফলেও ছাত্রদের তুলনায় এগিয়ে রয়েছে ছাত্রীরা। এই ৯ বোর্ডে ৭ লাখ ৯০ হাজার ৩৩৫ জন ছাত্র এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। উত্তীর্ণ হয়েছে ৬ লাখ ৫৫ হাজার ৬২১ জন। পাসের হার ৮২ দশমিক ৯৫ শতাংশ। ৯ বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ছাত্রীর সংখ্যা ৮ লাখ ৪০ হাজার ৯৭৩ জন। উত্তীর্ণ হয়েছে ৭ লাখ ১০ হাজার ৫৯৭ জন। পাসের হার ৮৪ দশমিক ৫০ শতাংশ।

টানা পঞ্চম বছর এগিয়ে মেয়েরাঃ

২০১৬ সাল থেকেই এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা পাসের হারে এগিয়ে রয়েছে। ওই বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মেয়েদের পাসের হার ছিল ৮৮ দশমিক ৩৯ শতাংশ, সেখানে ছেলেদের পাসের হার ছিল ৮৮ দশমিক ০২ শতাংশ। পরের বছর ২০১৭ সালে ছেলেদের পাসের হার ছিল ৭৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ, মেয়েদের ৮০ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

২০১৮ সালের তথ্যে দেখা যায়, ছেলেদের পাসের হার ছিল ৭৬ দশমিক ৭১ শতাংশ, যেখানে মেয়েদের পাসের হার ছিল ৭৮ দশমিক ৮৫ শতাংশ। আর ২০১৯ সালে ছেলেদের ৮১ দশমিক ১৩ শতাংশ পাসের হারের বিপরীতে মেয়েদের পাসের হার ছিল ৮৩ দশমিক ২৮ শতাংশ।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *