রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

0 0
Read Time:3 Minute, 25 Second

দ্যা ডেইলি নিউজ | ঢাকা: রাজধানীর রিজেন্ট হাসপাতালের নানা অনিয়মের অভিযোগে হাসপাতালটির চেয়ারম্যান মো. সাহেদসহ ১৭ জনের নামে মামলা করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

এর মধ্যে গতকাল সোমবার (৬ জুলাই) রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের সময়ই আট জনকে আটক করা হয়েছে। চেয়ারম্যান সাহেদসহ বাকি ৯ জন পলাতক রয়েছেন।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে র‌্যাবের পক্ষ থেকে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলা নম্বর ৫।

উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা সারাবাংলাকে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, করোনা পরীক্ষা না করেই রিপোর্ট দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে র‍্যাবের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে ৪০৬/৪১৭/৪৬৫/৪৬৮/৪৭১/২৬৯ ধারার অপরাধ উল্লেখ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘করোনা টেস্ট না করে রোগীদের জাল রিপোর্ট দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে র‍্যাব মামলা করেছে। প্রতারণা ও অর্থ-আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।’

মামলার আসামিরা হলেন—হাসপাতালের অ্যাডমিন আহসান হাবীব (৪৫), এক্সরে টেকনিশিয়ান হাসান (৪৯), মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট হাকিম আলী (২৫), রিসিপশনিস্ট কামরুল ইসলাম (৩৫), রিজেন্ট গ্রুপের প্রজেক্ট অ্যাডমিন রাকিবুল ইসলাম (৩৯), রিজেন্ট গ্রুপের এইচআর অ্যাডমিন অমিত অনিক (৩৩), গাড়ি চালক আব্দুস সালাম (২৫), এক্সিকিউটিভ অফিসার আব্দুর রশীদ খান জুয়েল (২৮), রেজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ (৪৩), ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাসুদ পারভেজ (৪০), হাসপাতাল কর্মচারী তরিকুল ইসলাম (৩৩), স্টাফ আব্দুর রশিদ খান (২৯), স্টাফ শিমুল পারভেজ (২৫), কর্মচারী দীপায়ন বসু (৩২) এবং মাহবুব (৩৮)। অপর দু’জনের নাম জানা যায়নি।

ওসি আরও বলেন, মামলায় মোট ১৭ জনকে আসামি করা হয়েছে। রিজেন্টের চেয়ারম্যানসহ ৯ জনকে পলাতক হিসেবে দেখানো হয়েছে মামলায়।

র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, রিজেন্টের চেয়ারম্যান পলাতক মো. সাহেদের অবস্থান সম্পর্কে অনেকটাই নিশ্চিত তথ্য রয়েছে তাদের কাছে।

তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে। যেকোনো সময় গ্রেফতার করা হতে পারে তাকে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *