দেশে আরও মৃত্যু ৩০, নতুন শনাক্ত ২৬৮৬, নমুনা পরীক্ষা ১১১৯৩

0 0
Read Time:4 Minute, 51 Second

দ্যা ডেইলি নিউজ |কোভিড-১৯ : নতুন করোনাভাইরাসে দেশে আরও ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এই মৃতদের নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৩০৫ এবং নতুন করে ২ হাজার ৬৮৬ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছ ।


স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডাঃ নাসিমা সুলতানা এক ব্রিফিংয়ে বলেন গত ২৪ ঘণ্টা দেশে এখন ৭৭টি গবেষণাগারে কোভিড-১৯ এর নমুনা পরীক্ষার ব্যবস্থা হয়েছে, যেখানে সরকারী বাবস্থাপনায় ৪৭ টি ও বেসরকারী বাবস্থাপনায় ৩০ টি ।

বুলেটিনে জানানো হয় এসব পরীক্ষাগারে গত এক দিনে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৭টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১১ হাজার ১৯৩টি। এই সংখ্যা আগের ২৪ ঘণ্টার চেয়ে ২ হাজার ২৯৫টি কম। নমুনা পরীক্ষা কমে যাওয়ায় দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও কমে যাচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞদের অনেকে মত জানিয়ে আসছেন।

শনিবারের বুলেটিনে এ পর্যন্ত দেশে ৯ লাখ ২৯ হাজার ৪৬৫টি নমুনা পরীক্ষার কথা জানানো হয়।

একদিনে আরও ২ হাজার ৬৮৬ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়ায় দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৮১ হাজার ১২৯ জনে।


আইডিসিআরের ‘অনুমিত’ হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১ হাজার ৬২৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত ২৪ ঘণ্টায়। তাতে সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল মোট ৮৮ হাজার ৩৪।


বুলেটিনে নাসিমা সুলতানা বলেন, শনিবার সকাল থেকে আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশে যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ২৫ জন পুরুষ এবং ৫ জন নারী।

এদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে, বাড়িতে থাকা অবস্থায় মারা গেছেন ১১ জন। মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয় ১ জনকে।

মৃতদের মধ্যে ১৩ জন ঢাকা বিভাগের, ১০ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ৩ জন রাজশাহী বিভাগের, ৩ জন খুলনা বিভাগের এবং ১ জন বরিশাল বিভাগের।

এই ৩৭ জনের মধ্যে ১ জনের বয়স ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে। ৩ জনের বয়স ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে, ১২ জনের বয়স ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে, ৮ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ৩ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, ৩ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ছিল।

বুলেটিনে নাসিমা সুলতানা জানান, কোভিড-১৯ পরীক্ষা নিয়ে অভিযোগ জানাতে একটি লিঙ্ক চালু করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। www.dghs.gov.bd ওয়েবসাইটের করোনা কর্নারে এ বিষয়ক অভিযোগ জানানো যাবে।



অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বলেন, নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৪৯ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৮ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং মৃত্যু হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ।

বিশ্বে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ২৫ লাখে গিয়ে ঠেকেছে, এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৬০ হাজারের বেশি জনের।

বাংলাদেশে নতুন করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ৮ মার্চ, তা দেড় লাখ পেরিয়ে যায় গত ২ জুলাই। সেদিন ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ।

আর ১৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ৫ জুলাই তা দুই হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *