প্রায় ৯০ লক্ষ পরিবারকে সহায়তা সম্ভব, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “প্রদীপ” কে অনুকরণ করে

1 0
Read Time:7 Minute, 57 Second

দ্যা ডেইলি নিউজ – বাংলাদেশ/ID/17 05 202/TDNB/005


চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “প্রদীপ” বিনোদপুর ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডের ১৫৬ টি হতদরিদ্র পরিবারের বাড়িতে বাড়িতে  বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির জন্য প্রায় ১৭ কেজি পরিমাণের একটি প্যাকেটের উপহারসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন ।

৭১ তম দিনে এসে সংক্রমণের মাত্রা ২২ হাজার ছাড়িয়েছে; এমতাবস্থায় থমথমে চারপাশ। সীমিত পর্যায়ে সাধারণের গুরুত্বপূর্ণ কার্যকলাপ সম্পন্নের সুযোগ থাকলেও থমকে আছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। ঘরবন্দী নিম্ন আয়ের মানুষ, নিরুপায় হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। কিন্তু দেশের এই দুঃসময়েও থেমে নেই চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনপ্রদীপ’, অসহায় মানুষগুলোর জন্য দুইমাস যাবত নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি । অটো রিকশা যোগে প্রতিটি গ্রামে ঘুরে ঘুরে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন হতদরিদ্রের বাড়িতে বাড়িতে।

প্রথম পর্যায়ের, গত ২৩ ২৪ এপ্রিল প্রথম পর্যায়ে ৫৫০ পরিবারকে দুই সপ্তাহের খাবারের যোগান দিয়েছিলপ্রদীপ

দ্বিতীয় পর্যায়ের, উপহারসামগ্রী নিয়ে গত দুদিন ধরে প্রদীপের স্বেচ্ছাসেবীরা রোদবৃষ্টি উপেক্ষা করে নিজস্ব বাহনে অত্র ইউনিয়নের টি ওয়ার্ডের ৫০৬ টি হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়ে আসে। প্রতিজনের জন্য ১৭ কেজি পরিমাণের একটি প্যাকেটের তালিকায় ছিল কেজি চাল, কেজি আটা, কেজি আলু, কেজি চিনি, কেজি পেঁয়াজ, কেজি ডাল, কেজি লবণ, লিটার সয়াবিন তেল একটি জীবাণুনাশক সাবান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিনোদপুর ভিত্তিক সম্মিলিত উদ্যোগে গড়া অরাজনৈতিক ও সামাজিক সেবামূলক সংগঠনটি করোনা উপলক্ষ্যে ১ হাজার ৫৬ টি গরীব ও দুস্থ পরিবারের মধ্যে প্রায় ৮ লক্ষ টাকার খাদ্যেসামগ্রী বিতরণ করলো। আসছে ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে তারা আরও ৩ লক্ষ টাকার খাদ্যসামগ্রী বিতরণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। সে অনুযায়ী ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডের অসহায়-দরিদ্রদের তালিকা তৈরির কাজও ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

তাছাড়া, অত্র অঞ্চলের চিকিৎসাবঞ্চিতদের স্বার্থে ‘প্রদীপ’ খুব শীঘ্রই চালু করতে যাচ্ছে টেলিমেডিসিন সেবা। যেখানে ১০ জন ডাক্তারের সমন্বয়ে গড়া একটি মেডিকেল টিম চিকিৎসা দিবেন ইউনিয়নের বাসিন্দাদের।

প্রদীপের জন্ম কথা:

করোনাভাইরাসে মানুষ যখন অসহায়, নিরুপায় ও ঘরবন্দী, ঠিক তখনি ইউনিয়নে কয়েকটি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯৯২ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত এসএসসির ব্যাচের সাবেক ছাত্রদের সমন্বয়ে এ সংগঠন। এখানে পৃষ্ঠপোষক হিসাবে কাজ করছেন সাবেক ছাত্র ও বর্তমানে চাকুরীরত অনেকে। এখানে কোন কমিটি নেই, নেই কোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য, নেই কোন ভেদাভেদ।

সবচাইতে উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে, এ সংগঠনের মাধ্যমে যে সমস্ত সেবামুলক কাজ হবে কেবল সেগুলো প্রকাশ করা যাবে। যারা জড়িত থেকে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে তাদের নাম প্রকাশ করা যাবে না। কারণ সংগঠনটি নিজেদের প্রচারের জন্য কিছু করছেন না, শুধু সমাজের অসহায় ও হতদরিদ্রদের সেবা করাই হচ্ছে মূল উদ্দেশ্য। করোনা থেকে মুক্তিলাভের পরও সেবা ধারাবাহিকতা চলবে বলে সুত্রটি জানায়।

প্রদীপের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য: প্রদীপের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ব্যাপক ও সুদূর প্রসারী। প্রদীপের স্বপś হলো প্রথমে বিনোদপুর ইউনিয়নে কোন মানুষ অনাহারে থাকলে বিশেষ ব্যবস্থায় অনাহারী ব্যক্তিদের সংবাদ পাওয়া মাত্রই খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হবে। বিনা চিকিৎসায় কেউ মারা যাবে না। রোগীর দোরগড়ায় চিকিৎসা পৌঁছে যাবে। কেউ অশিক্ষিত থাকবে না। সকলের জন্য শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। যারা শিক্ষা সম্পর্কে অসচেতন তাদেরকে সচেতন করা হবে। কোন ভিক্ষুক থাকবে না। ভিক্ষাবৃত্তির অবসান ঘটিয়ে ভিক্ষকদের জন্য এই সংগঠনের পক্ষ থেকে পূর্নবাসনের ব্যবস্থা করা হবে। বেকারত্বের অবসান ঘটিয়ে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সকল অনিয়ম ও দূনীর্তির অবসান ঘটিয়ে বিনোদপুরে একটি সুন্দর, স্বচ্ছ ও কর্মময় সমাজ গড়ার প্রচেষ্টা অব্যহত থাকবে। তবে কোন মতে সরকার বিরোধী কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা যাবে না।

 

“প্রদীপ” সংগঠনটির অনুরোধ:

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “প্রদীপ” বিনোদপুর ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডের ১৫৬ টি হতদরিদ্র পরিবারের বাড়িতে বাড়িতে  বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির জন্য প্রায় ১৭ কেজি পরিমাণের একটি প্যাকেটের উপহারসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন ।

তারা বিশ্বাস করে , করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের পাশাপাশি “প্রদীপ” সংগঠনটির মত যদি বাংলাদেশের ৪৫৫৪ টি ইউনিয়নের  চাকুরী, ব্যবসায়ী, ছাত্রসহ অন্যন্য সমাজের বিত্তবানরা নিজনিজ এলাকায় প্রতিটি ইউনিয়নে সম্মিলিত উদ্যোগে ২০০০ হতদরিদ্র পরিবারের পাশে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিলে প্রায় ৯১ লক্ষ (২০০০ পরিবার x ৪৫৫৪ টি ইউনিয়ন) পরিবারকে সহায়তা সম্ভব । যার ফলে সাড়ে ৩ কোটির বেশি মানুষ উপকৃত হবে।

মানবিক কারণে সমাজের বিত্তবানদের নিম্ম আয়ের মানুষদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়ানো উচিৎ। সংগঠনটির অনুরোধ নিজনিজ এলাকায় প্রতিটি ইউনিয়নে সম্মিলিত উদ্যোগে হতদরিদ্র পরিবারের পাশে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিন । 

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
Previous post ডিএসসিসির শীর্ষ ২ কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করলেন তাপস
Next post যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ওবামার কড়া সমালোচনা