বাংলাদেশ থেকে করোনাভাইরাস সহসাই যাচ্ছে না, ২-৩ বছর থাকতে পারে – স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

0 0
Read Time:2 Minute, 55 Second

দ্যা ডেইলি নিউজ / ID/18 06 2020/TDNB/00098

বাংলাদেশ থেকে করোনাভাইরাস সহসাই যাচ্ছে না জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, এটি আরও ২-৩ বছর থাকতে পারে।

তিনি বলেন, ‘জীবন ও জীবিকার ভারসাম্য রক্ষার জন্য সরকারকে কাজ করতে হবে … বিভিন্ন দেশ এবং জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের অভিজ্ঞতা অনুসারে করোনভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব এক, দুই বা তিন মাসের মধ্যেই শেষ হবে না। এটি দুই থেকে তিন বছর বা তার বেশি সময় ধরে চলবে। তবে সংক্রমণের হার এত বেশি নাও হতে পারে।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীর মহাখালী থেকে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে নিয়মিত ব্রিফিংয়ের শুরুতে এ কথা বলেন ডা. আবুল কালাম আজাদ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, মানুষ সচেতন না হলে করোনাভাইরাস খুব সহজে যাবে না।

ডা. আজাদ বলেন, ‘বাংলাদেশ একটি ঘনবসতিপূর্ণ দেশ এবং করোনভাইরাসটি অত্যন্ত সংক্রামক। সুতরাং, মানুষ যদি সাবধানতা অবলম্বন না করে এবং স্বাস্থ্যবিধি না মানে, তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলা করা কঠিন হতে পারে।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, সরকারি ও বেসরকারি উভয় প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সরকার জেলা পর্যায়ে আরটি-পিসিআর টেস্টিং সুবিধা (করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ব্যবস্থা) বাড়ানোর জন্য কাজ করছে।

 ‘আরটি-পিসিআর মেশিনে পরীক্ষার পাশাপাশি করোনাভাইরাস শনাক্তের সহজ বিকল্প ব্যবস্থাও নেয়া হবে।উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতালগুলোতে এ জাতীয় পরীক্ষা চালু করা হবে,’ যোগ করেন তিনি।

ড. আজাদ জানান, সমস্ত সরকারি জেলা হাসপাতালে আইসিইউ সংখ্যা বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে। সেখানে সেন্ট্রালি(কেন্দ্রীয়ভাবে) অক্সিজেন সরবরাহ হবে।

প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ নিজেও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে এখন সুস্থ আছেন এবং গত কয়েক দিন ধরে অফিস করছেন।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %